তত্ত্বাবধায়ক সরকার ইস্যু নিয়ে আলোচনারও আর কোনও সুযোগ নেই

Print This Post Email This Post

আইন প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কমরুল ইসলাম বলেছেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অপশাসন মানুষ আর চায় না। এটা নিয়ে আলোচনারও আর কোনও সুযোগ নেই। এখন একটাই পথ নির্বাচন কমিশনকে শক্তিশালী করা।

রিপোটার্র্স ইউনিটিতে শুক্রবার সকালে আয়োজিত অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন: প্রয়োজন স্বাধীন নির্বাচন কমিশন শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। সার্ক কালচারাল সোস্যাইটি এ আলোচনা সভার আয়োজন করে।

অ্যাডভোকেট কমরুল বলেন, সংবিধানের বিধান অনুযায়ী স্বাধীন ও শক্তিশালী নির্বাচন কমিশনের মাধ্যমে আগামী সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সেই নির্বাচনে সবাই অংশগ্রহণ করবে।

নির্বাচন কমিশনকে শক্তিশালী করতে তিনি বিরোধী দলের পরামর্শ আহ্বান করেন।

তিনি বলেন, শেখা হাসিনার সরকার প্রমাণ করেছে দলীয় সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব। নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচন তার উৎকৃষ্ঠ উদাহরণ। এ সরকারের অধীনে অনুষ্ঠিত কোনও নির্বাচন নিয়ে কেউ প্রশ্ন তুলতে পারবে না।

স্থানীয় সরকার নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েনের বিধান নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের বিষয়টিকে ইস্যু বানিয়ে বিএনপি আন্দোলন করতে চেয়েছিলো। নির্বাচন সুষ্ঠু হওয়ায় তারা ব্যর্থ হযেছে।

তিনি বলেন, গণতন্ত্রকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দেওয়ার জন্য তিন টার্ম তত্ত্বাবধায়কেই সথেষ্ট ছিলো। আমরা মনে করি এখন গণতন্ত্র প্রাতিষ্ঠানিক রূপ পেয়েছে। তত্ত্বাবধায়ক ছাড়া নির্বাচন করে গণতান্ত্রিক অগ্রযাত্রাকে এগিয়ে নিয়ে বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে চাই।

সংগঠনের চেয়ারম্যান সৈয়দ আবু হোসেন বাবলার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহ আলম মুরাদ, আওয়ামী শিল্পীগোষ্ঠীর সহ-সভাপতি আব্দুল হাই, ওশান গ্রুপেরর চেয়ারম্যান খন্দকার আলী আজম, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানা প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

আলোচনা শেষে ওশান গ্রুপের সহযোগিতায় সুবিধা বঞ্ছিত মানুষের মাঝে ঈদের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

পাঠকের মন্তব্য

বাংলা (ইউনিকোডে) অথবা ইংরেজীতে আপনার মন্তব্য লিখুন:

কীবোর্ড Bijoy      UniJoy      Phonetic      English
নাম: *
ই-মেইল: *
মন্তব্য: