রাজ্জাকের শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি

Print This Post Email This Post

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আব্দুর রাজ্জাকের শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি হয়েছে। তার লিভার ও কিডনি প্রতিস্থাপন অনিশ্চিত হয়ে পড়ার পাশাপাশি ফুসফুসেও দেখা দিয়েছে জটিলতা।

লন্ডনে বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রেস মিনিস্টার রাশেদ চৌধুরী বলেন, তাকে লন্ডনের কিংস কলেজ হাসপাতালে স্পেশাল কেয়ার ইউনিটে রাখা হয়েছে।

রাজ্জাকের স্ত্রী ফরিদা রাজ্জাক জানান, গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ায় গত সেপ্টেম্বরে হাসপাতালে ভর্তি করা হয় ৭০ বছর বয়সী এই আওয়ামী লীগ নেতাকে। স্বামীর আরোগ্য কামনায় দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন ফরিদা।

শেখ হাসিনার আগের সরকারের পানিসম্পদমন্ত্রী ছিলেন বঙ্গবন্ধুর হধন্য রাজ্জাক। এখন তিনি পানিসম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি।

তার লিভার প্রতিস্থাপনের জন্য ১১ ডিসেম্বর দিন ঠিক হলেও পরীক্ষার পর চিকিৎসকরা জানান, তার কিডনিও প্রতিস্থাপন করতে হবে। তারা দুটি অঙ্গ একসঙ্গে প্রতিস্থাপন করার পক্ষে মত দেওয়ায় অস্ত্রোপচার পিছিয়ে যায়।

ফরিদা গত ১০ ডিসেম্বর বলেন, অপারেশনের প্রস্তুতি ছিলো। কিন্তু কিডনি ট্রান্সপ্ল্যান্টের জন্য চিকিৎসকরা আরেকটি অস্ত্রোপচারের ঝুঁকি নিতে চাচ্ছেন না। দুটি অস্ত্রোপচার একসঙ্গে করতে চাইছেন তারা।

এই পরিস্থিতিতে রাজ্জাকের অবস্থার আরো অবনতি হলে গত রোববার তাকে স্পেশাল কেয়ার ইউনিটে নেওয়া হয়।

মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক রাজ্জাক ৭৫ এ বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছিলেন। পরে তিনি বাকশাল নামে আলাদা দল গঠন করেন। ৯০ এর দশকে বাকশাল আওয়ামী লীগের একীভূত হয়।

এরপর দীর্ঘদিন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন রাজ্জাক। ২০০৯ সালের দলের সম্মেলনে উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য করা হয় তাকে।

পাঠকের মন্তব্য

বাংলা (ইউনিকোডে) অথবা ইংরেজীতে আপনার মন্তব্য লিখুন:

কীবোর্ড Bijoy      UniJoy      Phonetic      English
নাম: *
ই-মেইল: *
মন্তব্য: